1. [email protected] : amicritas :
  2. [email protected] : newsdhaka :
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৩:২৯ পূর্বাহ্ন

রোমাঞ্চকর জয়ে আইপিএল শুরু কোহলিদের

নিউজ ঢাকা ডেস্ক
  • শেষ আপডেট: শুক্রবার, ৯ এপ্রিল, ২০২১

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ইতিহাসে সর্বোচ্চ পাঁচবার শিরোপা জিতেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। এবার হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের মিশন তাদের সামনে। তবে শেষ ৮ বারের মতো আইপিএলের ১৪তম আসরেও নিজেদের শুরুটা সুখকর হলো না মুম্বাইয়ের। ইনিংসের শেষ বলে তাদেরকে ২ উইকেটে হারিয়ে নিজেদের আইপিএল মিশন শুরু করলো রয়্যালস চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু।

আইপিএলে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স সর্বশেষ জিতেছে ২০১২ মৌসুমে। এরপর টানা ৯ মৌসুম নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয় বঞ্চিত ৫ বারের চ্যাম্পিয়নরা।

করোনার কারণে এবার আইপিএলে হোম এন্ড অ্যাওয়ে পদ্ধতি বাতিল করা হয়েছে। গ্যালারিতে নেই দর্শক। ১৪তম আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে আজ (শুক্রবার) চেন্নাইয়ের চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে কোহলির দলের সামনে ১৬০ রানের লক্ষ্য দেয় রোহিতের মুম্বাই। যেখানে বল হাতে প্রথমবারের মতো ৫ উইকেট নেন বেঙ্গালুরুর পেসার হার্শাল প্যাটেল।

এ লক্ষ্য টপকাতে নেমে দলকে কিছুটা ব্যাকফুটে রেখে যান ওপেনার ওয়াশিংটন সুন্দর। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে ক্রুনাল পান্ডিয়ার বলে আউট হন ১৬ বলে ১০ রান করে। একপ্রান্ত আগলে রাখেন আরেক ওপেনার কোহলি, তবে তাকে সঙ্গ দিতে পারেননি নতুন ব্যাটসম্যান রজত পাতিদার। তিনি ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন ৮ রান করে।

এরপর অজি অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে লড়ে যান কোহলি। কম যাননি ম্যাক্সওয়েলও। কিন্তু তৃতীয় উইকেটে দুজনের ৫২ রানের পার্টনারশিপের পর কোহলি আউট হন ৩৩ রান করে। ৫ রান পর একই পথে হাঁটেন ম্যাক্সওয়েল। ৩৯ রান করে জানসেনের বলে ফিরে যান তিনি। একই ওভারে জানসেনের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন শাহবাজ আহমেদ। মাত্র ১ রান আসে তার ব্যাট থেকে।

দ্রুত ৩ উইকেট হারিয়ে খানিক চাপে পড়ে যায় বেঙ্গালুরু। তবে বিপদ স্থায়ী হতে দেননি দলটির ঘরের ছেলে বনে যাওয়া এবি ডি ভিলিয়ার্স। নতুন ব্যাটসম্যান ড্যানিয়েল ক্রিস্টান ১ রানে সাজঘরে ফিরলে জ্যামিসনকে নিয়ে ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। দলের জয়ের ২ রান বাকি থাকতে ৪৮ রানের মাথায় রান আউট হন তিনি।

ডি ভিলিয়ার্সের আউটের পর শঙ্কা তৈরি হলেও সে শঙ্কা উড়িয়ে শেষ বলে গড়ানো ম্যাচে ২ উইকেটে জয় তুলে নেয় বেঙ্গালুরু।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নামা মুম্বাই দুই ওপেনারের ব্যাটে ভালো শুরু পায়। তবে রোহিত রান আউটে কাটা পড়ে ফেরেন ১৯ রান করে। দ্বিতীয় উইকেটে ৭০ রানের জুটি গড়েন ক্রিস লিন ও সুরিয়াকুমার যাদব। ৩১ রান করে সুরিয়াকুমার আউট হলে ফিফটির ঠিক আগে ৪৯ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান লিন।

এরপর ইশান কিশান ২৮ রানে আউট হলে শেষদিকের ব্যাটসম্যানরা রানের গতি বাড়াতে ব্যর্থ হন। হার্দিক পান্ডিয়া, কাইরন পোলার্ড, ক্রুনালরা সুবিধা করতে না পারায় ১৫৯ রানে থামে মুম্বাইয়ের ইনিংস। এতে বড় অবদান হার্শালের। ৪ ওভারে মাত্র ২৭ রান দিয়ে ৫ উইকেট তুলে নেন তিনি। যেখানে ইনিংসের শেষ ওভারেই ৩ উইকেট শিকার করেন এই পেসার। খরচ করেন মাত্র ১ রান।

অনুগ্রহ করে পোস্টটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটেগরির অন্যান্য পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *